গরু মোটাতাজাকরণে ইউ.এম.এস তৈরির পদ্ধতি, খাওয়ানোর নিয়ম, সুবিধা, অসুবিধা

গরু মোটাতাজাকরণ গরুর ফিড ফর্মুলেশন প্রাণিসম্পদ

গরু মােটাতাজাকরণ পদ্ধতিঃ
ইউরিয়া মােলাসেস স্ট্র বা ইউ.এম.এস তৈরীর পদ্ধতি নিম্নে দেওয়া হইলঃ
ইউ.এম.এস তৈরির জন্য শতকরা ৮২ ভাগ খড়, ১৫ ভাগ
(চিটাগুড়/মােলাসেস) এবং ৩ ভাগ ইউরিয়া সার প্রয়ােজন। এ হিসেব মতে, ১০০ কেজি শুকনা খড়, ঘনত্বের উপর নির্ভর করে ২১-২৪ কেজি মােলাসেস এবং ৩ কেজি ইউরিয়া মেশালেই চলবে।

উদাহরণ: আমরা যদি ১০ কেজি ইউ,এম.এস তৈরী করতে চাই। তাহলে,
★ প্রথমে সুনিদ্রিষ্ট পরিমান খড়, চিটাগুড়-ও ইউরিয়া মেপে নিতে হবে।

★ ১০ কেজি ইউরিয়া মিশ্রিত খড় তৈরীর জন্য ২ কেজি চিটাগুড়, ৩০০ গ্রাম ইউরিয়া এবং ৬-৭ লিটার টিউবলের পানি প্রয়ােজন।

★ ১০ কেজি শুকনা খড় ৩-৪” লম্বা করে কেটে নিয়ে পলিথিন বিছানাে বা পাকা মেঝেতে সমভাবে বিছিয়ে রাখতে হবে।

★ এরপর ৩০০ গ্রাম ইউরিয়া ও ২ কেজি চিটাগুড় নির্দিষ্ট পরিমান পানি ৬-৭ লিটার পানির সংগে ভাল ভাবে মিশিয়ে নিতে হবে।

★ ইউরিয়া ও চিটাগুড় মিশ্রিত পানি ঝরনার সাহায্যে/হাতের সাহায্যে উক্ত খড়ের উপরে ছিটিয়ে দিতে হবে।

★ ইউরিয়া মােলাসেস মিশ্রিত পানি ছিটানাের সাথে সাথে খড়কে উলটিয়ে পাল্টিয়ে দিতে হবে। যাতে খড় সম্পূর্ন ইউরিয়া মােলাসেস মিশ্রত পানি চুষে নেয়। এমনভাবে স্তরে স্তরে খড় সাজাতে হবে যেন ইউরিয়া মােলাসেস মিশ্রিত পানি সমতা মিশ্রিত হয়ে যায়।

★ ওজন করা সম্পূর্ণ খড়ের সাথে সম্পূর্ণ ইউরিয়া মােলাসেস মিশ্রিত পানি মিশে গেলেই ইউরিয়া মােলাসেস স্ট্র তৈরী করা হবে এবং গরুকে এই প্রক্রিয়াজাত খড় খাওয়ানাের উপযােগী হবে।

খাওয়ানাের নিয়ম:

২-৪ কেজি ইউ.এম.এস প্রতিদিন প্রতিটি গরুকে খাওয়ালে গরু দ্রুত মােটাতাজা হয়। এই খাদ্য ৩ দিনের মধ্যে পশুকে খাওয়ালে পশুর খাওয়ার রুচি বাড়ে।

সুবিধা সমূহঃ

★ এই পদ্ধতিতে ইউরিয়া প্রক্রিয়া জাত খড় তৈরীর সংগে সংগে সব ধরনের যেমন বাড়ন্ত, দুগ্ধবরতী, গর্ভবতী, গাভী ও মহিষকে চাহিদা মত খাওয়ানাে যায় এতে পশুর স্বাস্থ্য ও দুধের পারিমান আশনুরূপ ভাবে বেড়ে যায়।

★ ইউরিয়া মিশ্রিত খড়ের পাশাপাশি অন্যান্য খাদ্য পশুকে খাওয়ানাে যায়। যেমনঃ কাঁচাঘাস, দানাদার খাদ্য ইত্যাদি।

অসুবিধা সমূহঃ

★ ইউরিয়া, মােলাসেস, খড় ও পানির পরিমান ঠিক রাখতে হয়। ইউরিয়ার মাত্রা কোন অবস্থায় বাড়ানাে যাবে না। ইউরিয়ার পরিমান বৃদ্ধি করলে বিষক্রিয়ায় পশু মারা যাবার সম্ভাবনা থাকে।

★ এই পদ্ধতিতে তৈরী ইউ.এম.এস. ৩ দিনের মধ্যে খাইয়ে শেষ করতে হয়। কারন ৩ দিন পরে ইউ.এম.এসে. ইউরিয়া ও লালীগুড়ের পরিমান কমে যায়। ফলে ইউ.এম.এস এর কার্যকারিতা হারিয়ে ফেলে।

★ ৬ মাসের নীচের বাছুরকে ইউ.এম.এস. খওয়ানাে উচিত নয়।

Tagged

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *