গরু বাচ্চা দেয়ার লক্ষণ

গাভীর খামারে প্রদেয় খাদ্যে গাভীর জন্য প্রয়োজনীয় প্রোটিন চাহিদার হিসাব

গরু পালন গরুর ফিড ফর্মুলেশন ডেইরি ফার্মিং

একটি খামারে দৈনন্দিন খাবারের Dry Matter (DM), Protein, Energy, Calcium, Phosphorus এগুলো সব ব্যালেন্স করেই খাবার প্রদান করা উচিৎ।

আজ উক্ত গাভীতে প্রদত্ত খাবার দিয়ে প্রোটিন এর চাহিদা পূরন হলো কি না সেটি নিয়ে আলোচনা করবো-
★ গাভিটির লাইভ ওজন ছিলো= ৪০০ কেজি।
দৈনিক দুধ উৎপাদন= ১৬ লিটার।
আমরা জানি প্রতি কেজি লাইভ ওজনের জন্য প্রোটিন দরকার ১ গ্রাম।
পাশাপাশি প্রতি লিটার দুধ উৎপাদনের জন্য প্রোটিন দরকার ৯০ গ্রাম (কমপক্ষে)।
★ঐ গাভীটির প্রোটিন প্রয়োজন ওজন অনুযায়ী= ৪০০১= ৪০০গ্রাম। দুধের জন্য= ১৬৯০= ১৪৪০ গ্রাম।
মোট প্রোটিন দরকার= ১৮৪০
★আমরা জানি-
১ কেজি কাচাঁ ঘাসে প্রোটিন থাকে (আনুমানিক)= ২০ গ্রাম
১ কেজি খড়ে প্রোটিন থাকে (আনুমানিক)= ৪ গ্রাম
ফিডের হিসেব অনুযায়ী এক কেজি নারিশ ডেইরী প্রিমিয়াম ফিডে প্রোটিন থাকে ২১০ গ্রাম।
★ ঐ গাভীটি কে DM অনুযায়ী যে খাবার দেওয়া হয়েছিলো সেটি দিয়েই প্রোটিনের হিসেব করি-
১। সবুজ কাচাঁ ঘাস= ২০ কেজি।
মোট প্রোটিন= ২০২০= ৪০০ গ্রাম ২। খড় = ৫ কেজি মোট প্রোটিন= ৫৪= ২০ গ্রাম
৩। ব্যালেন্স ফিড (নারিশ প্রিমিয়াম)= ৬ কেজি।
মোট প্রোটিন= ৬*২১০= ১২৬০ গ্রাম।
মোট প্রোটিন= ১৬৮০ গ্রাম।
তাহলে এখানে প্রোটিন কম= ১৮৪০-১৬৮০= ১৬০ গ্রাম!
এক্ষেত্রে প্রডাকশন ঠিক রাখার জন্য গাভিটিকে আরও ৫০০ গ্রাম থেকে ৭০০ গ্রাম ব্যালেন্স ফিড দৈনিক বাড়িয়ে দিতে হবে।

★পরবর্তীতে পর্বে একই গাভী ও তাকে প্রদত্ত খাবার নিয়ে এনার্জি এর হিসেব করা হবে।
(To be Continued)

Dr. Md. Shah Azam

Tagged

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *