গাভী গরম হবার পরে বীজ দেয়ার উপযুক্ত সময় জেনে নিন

খামার ব্যবস্থাপনা গরু পালন ডেইরি ফার্মিং প্রাণিসম্পদ

বকনা বা গাভী গরম হওয়ার পর করণীয় বকনা বা গাভী গরম অবস্থায় প্রধান কাজ হলো পাল দেওয়া। এজন্য প্রথমেই পাল দেওয়ার উপযুক্ত সময় নির্ণয় করতে হবে।

সাধারণতঃ গাভী গরম হওয়ার লক্ষণ প্রকাশ পাবার পর থেকে পরবর্তী ১৮ ঘন্টার মধ্যে পাল দিলেই চলে।

এস্ট্রাস ধাপ শুরু হওয়ার ৮ ঘন্টা পর গাভীতে গরম হওয়ার লক্ষণ প্রকাশ পায় এবং পরবর্তী ১৮ ঘন্টা পর্যন্ত গরম অবস্থা স্থায়ী থাকে। এরপর থেকে গরম অবস্থা চলে যেতে থাকে।

গরম অবস্থায় আসার শুরু থেকে ৬ ঘন্টার মধ্যে পাল দিলে সফলতার হার হবে শতকরা ৪৫ – ৭০ ভাগ আর ৭ থেকে ১৮ ঘন্টার মধ্যে পাল দিলে শতকরা ৭০ – ৯০ ভাগ পর্যন্ত সফলতা পাওয়া যাবে।

তবে সবচেয়ে ভালো ফল পাওয়া যাবে ১২-১৮ ঘন্টার মধ্যে পাল দিলে। ১৮ ঘন্টার পর পাল দিলে ক্রমান্বয়ে সফলতার হার কমতে থাকবে।

পাল দেওয়ার পদ্ধতি

১। প্রাকৃতিক পদ্ধতি ঃ বকনা বা গাভীর সঙ্গে প্রজননক্ষম ষাঁড়ের মিলনের মাধ্যমে এই প্রক্রিয়া সম্পাদিত হয়।

২। কৃত্রিম পদ্ধতি ঃ এক্ষেত্রে কৃত্রিমভাবে ষাঁড়ের বীর্য বকনা বা গাভীর জননতন্ত্রে প্রবেশ করানো হয়। বকনা বা গাভীর ক্ষেত্রে মলদ্বার যোনি পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়ে থাকে।

Tagged

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *