গাভী হিটে না আসা বা ডাকে না আসা বা গরম না হওয়ার কারন লক্ষণ ও চিকিৎসা

গরু মোটাতাজাকরণ ডেইরি ফার্মিং প্রাণিসম্পদ রোগ ও প্রতিরোধ

গাভী হিটে না আসা বা গরম বা ডাক না আসা (Anestrum):
বকনা পশু বয়:প্রাপ্ত হওয়া সর্ত্বেও ও গাভী বাচ্চা দেওয়ার ৩ মাসের মধ্যে গরম বা
হিটে না আসাকে এ্যানস্ট্রাম (Anestrum )বলা হয়। আমাদের দেশের গরুর প্রায়
৮৬% এ্যান্ট্ট্রাম (Anestrum) হওয়ার তথ্য আছে।

হিটে না আসার কারনঃ

পুষ্টির অভাব যেমন: ফসফরাস, কপার, কোবাল্ট, মাঙ্গানিজ, সিলেনিয়াম ও

ভিটামিন এ, ডি ও ই ইত্যাদির অভাবে এ রােগ হয়।

জরায়ুতে প্রদাহ: বিভিন্ন ধরনের জীবানু দ্ধারা এ রােগ হয়।
ওভারীর সমস্যা: ওভারীতে বিভিন্ন ধরনের সিস্ট বা পানির থলি হলে ও

টিউমার হলে পশু সময়মত পশু গরম হয় না।

হরমােনের ভারসাম্যহীনতা: ইস্টোজেন ও প্রজেস্টরেন, ফলিকুল স্টমুলেটিং

হরমােন, এল এইচ, পােস্টাগ্লানডিন ইত্যাদির লেভেল রক্তে কম-বেশী হলে
এ রােগ হয়।
লক্ষনঃ
১) বকনা বা গাভী যথা সময়ে হিটে বা গরম না আসা।
২) হিট বা গরম হওয়ার কোন লক্ষণ প্রকাশ পায় না।

রোগ নির্নয়ঃ

১। পুষ্টিহীনতা, খাওয়া দাওয়ার অপ্রতুলতা ও জনন তন্ত্রের বিভিন্ন রােগের ইতিহাস।

২। রেক্টাল পালপেশন মাধ্যমে জনন অঙ্গের পরিবর্তন পরিলক্ষিত হয় যেমন- ডিম্বাশয়ে ফলিকুলার বা লিউটিয়াল সিস্ট, জরায়ুতে সংক্রামন (স্ফীত ও ব্যাথাপূর্ণ) ইত্যাদি।

চিকিৎসা:

গরু সময়মত হিটে না আসলে রােগ নির্ণয় করে চিকিৎসা দেওয়া খুব কঠিন হয়। তাই একজন অভিজ্ঞ ভেটেরিনারি ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে চিকিতসা করাতে হবে। তবে প্রাথমিকভাবে গাভীকে কৃমি মুক্ত করে। ভিটামিন এডি৩ই জাতীয় ইঞ্জেকশন দিলে বা সিরাপ খাওয়ালে গাভী গরম হতে পারে। এতে কাজ ন হলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে কারন অনুযায়ী চিকিতসা করাতে হবে।

Tagged

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *