পশু পালন ও কৃষি হচ্ছে পৃথিবীর আদিমতম, প্রাধান ও মৌলিক পেশা

আধুনিক কৃষি

আপনি জানেন কি?
পশু পালন এবং কৃষি হচ্ছে পৃথিবীর আদিমতম, প্রধান এবং মৌলিক পেশা। পৃথিবীতে মানবের পথ চলার সাথে সাথেই খাদ্য উৎপাদনের শুরু। পৃথিবীতে মানবের প্রথম পথ চলার সুনির্দিষ্ট সময় যেমন জানা যায়না, তেমনি পশুপালনের সুনির্দিষ্ট সময়ও জানা যায়না। তবে ইতিহাসের তথ্য অনুযায়ী খ্রিস্টপূর্ব ১১০০০ বছর পূর্বে পশুপালন শুরু হয়েছিল বলে ধারণা করা হয়। খ্রিস্টপূর্ব ৭০০০ সালে আনাতোলিয়া অঞ্চলে ( এশিয়া মাইনর, আরব) গৃহপালিত পশু হিসাবে গরু, ছাগল, উঠ, ভেড়া, দুম্বা পালন করা হতো বলে তথ্য পাওয়া যায়। খ্রিস্টপূর্ব ৬০০০ সালে পূর্ব ইউরোপে এবং খ্রিস্টপূর্ব ৫০০০ সালে আফ্রিকায় পশুপালনের নিশ্চিত ইতিহাস পাওয়া যায়, আর ব্রিটেন এবং নর্থ ইউরোপে খ্রিস্টপূর্ব ৪০০০ সালে পশুপালন শুরু হয় বলে ধারণা করা হয়।

তবে একাদশ এবং দ্বাদশ শতাব্দীর পরেই বৃহৎ আকারে আধুনিক এবং সুসংগঠিত গরু পালন শুরু হয়। সময়ের পথ পরিক্রমায় এবং মানুষের প্রয়োজনে গরু পালন এখন পৃথিবীর অন্যতম প্রধান পেশা। এই পেশা থেকেই উৎপাদিত হয় মানুষের জন্য প্রয়োজনীয় পুষ্টির সবচে দরকারী এবং প্রধান উপাদান, দুধ এবং মাংস। বিশ্বজুড়ে এই পেশার সাথে জড়িয়ে আছে কোটি কোটি পরিবার। কৃষিপ্রধান আমাদের দেশে আধুনিক গরুপালনের ইতিহাস ছোট হলেও বর্তমান বাস্তবতায় এবং বেকার সমস্যার সমাধানে পশু পালনের গুরুত্ব অপরিসীম। কাজেই এই খাতের সামগ্রিক উন্নয়নে সরকারি বেসরকারি উদ্যোগে সমন্বিত পরিকল্পনা জরুরি হয়ে পড়েছে এবং এটা সময়ের দাবিও বটে। অন্যথায় পুজি খোয়ায়ে পথভ্রষ্ট হয়ে হারিয়ে যাবে হাজারো খামারী, রাখাল এবং রাখালের স্বপ্ন।

Tagged

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *