বায়োফ্লক নিয়ে খোলামেলা কিছু কথা

অদম্য উদ্যোক্তা বায়োফ্লক পদ্ধতিতে মাছ চাষ মাছ চাষ মৎস্যসম্পদ

আপডেট পর্বঃ ০১

ছবিতেঃ বাম দিকে কৃষিবিদ তৌহিদুল ইসলাম শাকিল

বায়োফ্লক নিয়ে কয়েক মাস থেকে অনেক ঘাটাঘাটি করলাম। যারা বায়োফ্লকে মাছ চাষ করছেন তাদের অনেকের সাথে কথা বললাম। ২ টি বায়োফ্লক খামার সরাসরি ভিজিট করলাম। কেন যেন মনে হল উনারা বায়োফ্লকে মাছ চাষের কথা, লাভ লোকসানের কথার চেয়ে ট্রেনিং কিংবা মালামাল ক্রয় দিকেই বেশী মনোযোগী। কেউ বা বলছেন আমি ১/২ বছর ধরে করছি, জিজ্ঞেস করলাম ভাই কত খরচ, কত লাভ হল, একটু বলুন, তাহলে আমরা সাহস পাব। উনি বললেন হতাস হবার কিছু নেই, লাভ হয়েছে তাইতো লেগে আছি। আমি অনেক কে জিজ্ঞেস করেছি, কেউই বলতে পারে নি। জিজ্ঞেস করলাম কি probiotic ব্যবহার করেন, উত্তরে বললেন আমাদের সামনের সোমবার থেকে ট্রেনিং দেয়া হবে। ওখানে সব শিখতে পারবেন। বললাম ফি কত, বলল ৭০০০ টাকা। হিসেব করলাম এভাবে মাসে ৭ জনকে ট্রেনিং দিলেই তো ৫০,০০০ হাজার, আর মালামাল বিক্রি করে মাসে ২০০০০ টাকা। তো ব্যবসা এটাই ভাল। বায়োফ্লকে লস আসলেও সমস্যা নেই।

আমি science & technology তে বিশ্বাস করি যেহেতু আমি একজন মৎস্যচাষী, এবং এ বিষয়ে আমার পড়াশোনা ও চাকুরী সবকিছু। তাই সিদ্ধান্ত নিলাম আমি একটি ১০০০০ লিটারের R & D বায়োফ্লক করব এবং প্রতিদিন গ্রুপে আপডেট দিব। কি ব্যবহার করলাম, কতটুকু ব্যবহার করলাম, এফসিআর কত, সব গুলোর ভিডিও থাকবে। আমার বায়োফ্লক physically যে কেউ ভিজিট করতে পারবে। ইচ্ছে হলে যে কেউ থেকেও শিখতে পারবে। আমি চাই খামারী বন্ধু রা যেন টেকনোলজি শিখতে পারেন এবং অন্যকে শিখাতে পারেন। ট্যাংক preparation একদম ইজি। আগে আসুন আমরা চাষে লাভ লজ হিসেব করি।২/৩ মাস আমার আপডেট দেখুন। যদি লাভজনক হয় ছোট করে ১ টি শুরু করে দেখবেন। এরপর বড় কিছু চিন্তা করবেন।

আজকের আপডেট ঃ
০১.১০.১৯, মটরের পানি দেয়া হয়েছে। ১০০০০ লিটার
০২.১০.১৯, চুন ১/২ কেজি ও ১০ কেজি আয়োডিন বিহীন লবন(Raw salt) দেয়া হয়েছে।

প্রজেক্ট লোকেশন ঃ

রশীদ এগ্রো এন্ড ফিশারীজ
পাচ কাহনীয়া, টাংগাইল সদর, টাংগাইল।

কৃষিবিদ তৌহিদ
Bsc(Fisheries), MS(Aquaculture)
বাংলাদেশ কৃষি বিশব্বিদ্যালয়
ময়মনসিংহ।

Facebook Comments
Tagged

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *