সহজ পদ্ধতিতে খাশি মোটাতাজাকরণ

ছাগল পালন প্রাণিসম্পদ

খাশি মোটাতাজা করন ১

আপনি কেন মোটাতাজা করবেন ??
শখের জন্য করলে আপনার কোন খাতা কলম এর দরকার নাই।

বানিজ্যিক ভাবে মানে আয়ের জন্য করলে আপনাকে অনেক চিন্তা ভাবনা করে সঠিক পথ বেছে নিতে হবে। 
আপনি যদি আয়ের জন্য খাসি লালন পালন করতে চান তাহলে আপনাকে ভাবতে হবে প্রতিদিন কত টাকার খাবার খরচ হচ্ছে প্রতিদিন কত টুকু মাংস উৎপাদন হচ্ছে । আপনার ছাগল থেকে বছর শেষে মুনাফা অর্জন হবে কিনা সেটা আগে অবশ্যই বিস্তারিত জানতে চেষ্টা করুন।

জাত আপনাকে বাছাই করতে হবে এলাকার চাহিদা অনুযায়ী । খাদ্য তালিকা তৈরি করতে হবে এলাকায় সহজলভ্য এমন কিছু দিয়ে ঘাস চাষ করার ইচ্ছা থাকলে যে খামারি যে ঘাস চাষ করে তার থেকে সেই ঘাস সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে হবে।

খাশি ক্রয় করার সময় যে বিষয়গুলো নজর রাখতে হবে।
১ বয়স দুই দাত।
২ উচ্চতা ভাল।
৩ লোম ছোট ও মস… 
৪ রোগ মুক্ত । 
৫ নিজের এলাকায় চাহিদা ভাল ।
৬ হাটের দালাল এর মাধ্যমে কিনতে হবে ।
৭ দুইদাতের বেশি হলেও সমস্যা নাই ।
৮ বডি চওড়া মোটা ।
৯ মাংসের মূল্যের বেশি যেন না হয় দাম ।

খাশি কেনার পর প্রথম কাজ হল কৃমি মুক্ত করা লিভার টনিক দেয়া।

এবার আসুন খাদ্যে। 
আস্তে আস্তে খাদ্যভাস পরিবর্তন করা।

যদি সময় দিতে পারেন তাহলে প্রতিদিন এর খাবার চার ভাগে ভাগ করে দিন।
সংগ্রহ করতে পারলে পাকড় পাতা, সজিনা পাতা, ইপিল ইপিল, দিতে পারেন।

দানাদার খাদ্যের তালিকা তৈরি করুন
১ সয়াবিন খৈল
২ ভুট্টা ভাংগা
৩ গমের ভুসি কম দিবেন 
মাসে তিন দিন প্রোবায়োটিক ইউজ করতে পারেন ,পপুলার কোম্পানি রেনেটা কোম্পানি সহ অনেক কোম্পানি আমদানি করে নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যবহার করতে পারেন।

প্রোবায়োটিক ব্যবহার করলে রুমেন এর কার্যকারিতা বৃদ্ধি পায় ভুট্টা ভাংগা হজম করতে সুবিধা হবে।

খাসির প্রস্রাব বন্ধ হবার সম্ভাবনা থাকে এই জন্য অ্যামোনিয়াম ক্লোরাইড ইউজ করতে হব, অ্যামোনিয়াম ক্লোরাইড সংগ্রহ করতে না পারলে পানির সাথে পরিমান মত লবণ দিতে হবে লবন টা কাঁচের বোতলে রাখতে হবে না হলে আয়োডিন উরে যায়।

গলায় দড়ি না দিয়ে লালন পালন করতে পারলে বেশি ভালো রেজাল্ট পাবেন আশা করি।

খেসারি হে আমি কখনো ব্যবহার করিনি খেসারি হে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে 
তাজুল ইসলাম ভাই নড়াইল
খান শাহিন ভাই শ্যামনগর এই দুইজনের থেকে পরামর্শ নিতে পারেন খেসারি হে সম্পর্কে।

খর খাওয়ানোর নিয়ম কম বেশি সবাই জানি তার পরেও বুঝতে অসুবিধা হলে কোন অভিজ্ঞ খামারি ভাই এর থেকে পরামর্শ নিতে পারেন আশা করি সহযোগিতা পাবেন।

আমি নয় মাস খাসি লালন পালন করেছিলাম দাঁত হয়েছিল একটি দুই দাঁত
একটি দুই দাঁত হয়ে দুই দাঁত ভেঙ্গে ছিল।
১ একটি লাইভ ওয়েট ছিল ৫৫+ মাংস ২৭ কেজি বয়স ১৫ মাস
২ একটি লাইভ ওয়েট ছিল ৭০+ মাংস ৩৮
কেজি বয়স ১৮ মাস আনুমানিক
জাত ছিল 
কোটা ক্রস একটি বিটল ক্রস একটি
কেউ বলেছিল তোতা ক্রস ।

লেখক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম শাহিন।
___________________________________

খাশি মোটাতাজা করন‌ ২

প্রথম কথা আপনি মোটাতাজা কেন করবেন।শখের বশে না বানিজ্যিক ভাবে। যদি শখে করেন তাহলে আপনি আপনার মতকরেই দেন আর বানিজ্যিক নিচে দেখতে পারেন।

খাশি পছন্দ
* দুই দাত
* উচ্চতা ভাল
* লোম ছোট ও মসৃন
* হাড্ডিসার
* তবে রোগ মুক্ত
* যার বাজার চাহিদা ভাল
* আপনার এলাকায় ভাল চলে
* হাট থেকে কেনা
* দুইদাতের বেশি হলেও সমস্যা নাই
* বডি চওড়া মোটা

খাশি কেনার পর প্রথম কাজ হল কৃমি মুক্ত করা। 
আবার আসুন খাদ্যে 
আস্তে আস্তে খাদ্যভাস পরিবর্তন করা।প্রথমত নিচের মেন্যু যদি আপনি দ্রুত করেন তাহলে খাশি বদ হজম এ পড়তে পারে।
আপনার প্রতিদিনের দানাদার ১০ টার জন্য
*১ কেজি সয়ামিন খৈল
*১ কেজি ভুট্টা গুড়া
*১ কেজি খুদ
* ডিবি, ডিছিপি পরিমান মত
*খড় পুরিমান মত বা হে
* শরিষার খৈল ২৫০ গ্রাম 
দানাদার পরিমান নির্ভর করবে খাশির সাইজ এর উপর। তবে খুদের পরিমান বাড়িয়ে দিতে পারেন।

খড় বা হে লবন পানিতে ভিজিয়ে রাখুন যেন খড় পানি শুষে নেয়ার পর পানি না থাকে। তিন ঘন্টা আগে দানাদার খুদ বাদে পানিতে ভেজান। এবার ভেজানো খড় আর দানা একসাথে ভালভাবে মিশিয়ে রেখে দিন। দুই ঘন্টা পর খেতে দিন।

দিনে যদি দুইবার দেন তাইলে আলাদা আলাদা করে দুই বার করুন। খাবার দেয়ার সময় খুদ দুইভাগ করে দিয়ে দিন খাবারের সাথে।

খরচ আরো কমাতে চাইলে
ভুট্টা, সয়ামিন, লবন সহ সব উপাদান হাড়িতে করে চুলাই দিয়ে দিন। রান্নাটা এমন হবে যেমন ফেনা ভাত রান্না হয় বা কাদা কাদা হয়। এতে লাভ হবে ১ কেজি খাবার তিন কেজি সমান হবে, পরিমানে বেশি পরিমান খেতে দেয়া যাবে বা এভাবে বেশি খাশিকে দেয়া যাবে। খাশি অনুপাতে আশানুরুপ ফল না হলে খাবার বারিয়ে দিন।
বিক্রির সময় ঘনিয়ে আসলে খাবার একটু বাড়িয়ে দিতে পারেন।

মাঝে মাঝে বিট লবন দিবেন খাবারে।
কাচা ঘাস থাকলে একবেলা দিন।

#কেও যদি বলে খুদ দিলে ফ্যাট হয়ে যাবে তাহলে আপনি একটু কষ্ট করে শসা গাছ লাগান ৮/১০ টা আর ফলন শুরু হলে প্রতিদিন খেতে দিন তবে ফ্যাট শুরু হওয়ার পরে দিন।

লেখক তাজুল ইসলাম ভাই।
___________________________________
খাশি মোটাতাজা করন ৩

খাশি_ছাগলের_খাবার_সমাচার :

প্রথমেই বলে নেই ছাগল এর খাবার ব্যবস্থাপনা উপাদান কম বেশি নির্ভর করবে তার বর্তমান স্বাস্থ্যের উপর এবং আপনার আশে পাশে যা পাওয়া যায় তার উপর ভিত্তি করে। এইখানে যাকিছু দেয়া হচ্ছে সব ইন্টারনেট থেকে নেয়া এবং আমার ফার্মে প্রয়োগ করে সুফল পেয়েছি তার উপর ভিত্তি করে। তাছাড়া জাতও উল্লেখ যোগ্য ভূমিকা পালন করে ভালো ফল পাওয়ার ক্ষেত্রে।

বাচ্চা জন্মানোর পর থেকে খাসি সেল করা পর্যন্ত কোন কোন বয়সে কতটুকু খাবার প্রয়োজন তার একটা ধারণা দেয়া হচ্ছে।

বাচ্চা : প্রথম ৩ দিন মায়ের শাল দুধ দিতে হবে পরিমান ৩৫০ মিলি দিনে ৩ বার
৪ দিন থেকে ১৪ দিন মায়ের দুধ অথবা মিল্ক রিপ্লেসার ৩৫০মিলি দিনে ৩ বার 
১৫ থেকে ৩০ দিন সমপরিমান দুধের সাথে ক্রিপ ফিড এবং গাছের পাতা ( কাটার একদিন পর যাতে একটু শুকনা হয় ) সামান্য পরিমান 
৩১ দিন থেকে ৬০ দিন ৪০০ মিলি দুধ ২ বার সাথে ১০০ থেকে ১৫০ গ্রাম ক্রিপ ফিড সাথে পর্যাপ্ত একদিনের শুকনা ঘাস ৫০% ও পাতা ৫০% 
৬১ থেকে ৯০ দিন ২০০ মিলি দুধ ২ বার সাথে ২০০ থেকে ৩৫০ গ্রাম ক্রিপ ফিড সাথে পর্যাপ্ত একদিনের শুকনা ঘাস ৫০% ও পাতা ৫০%

ক্রিপ ফিড ফর্মুলা :

১. ভুট্টা ভাঙা ৫০%
২. সয়াবিন খৈল ৪০%
৩. চিটা গুড় ৪%
৪. লবন ১%
৫. চুনাপাথর ৩%
৬. চিলেটেড মিনারেল মিক্স ২% ( চিলেটেড ব্যবহার করা উত্তম )

Percent TDN 69.7%
Percent CP 19.3%
Percent Ca 1.754%
Percent P 0.611%
Ca:P ratio 2:871

বাড়ন্ত ছাগলের খাবার :

১. ভুট্টা ভাঙা ৪৭%
২. সয়াবিন খৈল ৩০%
৩. চিটা গুড় ৭%
৪. গমের ভুষি ১০%
৪. লবন ১%
৫. চুনাপাথর ৩%
৬. চিলেটেড মিনারেল মিক্স ২% ( চিলেটেড ব্যবহার করা উত্তম )

Percent TDN 67.8%
Percent CP 16.9%
Percent Ca 2.075%
Percent P 5.443%
Ca:P ratio 0.381

প্রতিদিন ৩০০ থেকে ৫০০ গ্রাম নির্ভর করে সাইজও জাতের উপর।

সাথে ঘাস ৫০% এবং লিগুম বা পাতা ৫০% পর্যাপ্ত পরিমান ( ঘাস ও লিগুম এ প্রচুর ক্যালসিয়াম আছে যা ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস অনুপাত ঠিক রাখবে )

লেখক : SR farms

Facebook Comments
Tagged

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *