হাঁসের খাদ্য তৈরি (বাচ্চা হাঁস, বাড়ন্ত হাঁস ও ডিম পাড়া হাঁস)

প্রাণিসম্পদ ফিড ফর্মুলেশন হাঁস পালন হাঁসের ফিড ফর্মুলেশন

গ্রামাঞ্চলে হাঁস অর্ধ আবব্ধ পদ্ধতিতে পালন করা হয়। পুকুর, খাল-বিল, নদী ইত্যাদিতে হাঁস চড়ে বেড়ায় এবং এখান থেকেই খাদ্য সংগ্রহ করে। অনেক খামারীগণ হাঁসকে শুধু ধানের কুড়া, চাল, গম এসব খেতে দেয়। সাধারনত বর্ষা মৌসুমে সম্পুরক খাদ্য হিসেবে বাচ্চা প্রতি ৫০ গ্রাম এবং বয়স্ক গুলোকে ৬০ গ্রাম হারে সুষম খাদ্য দিতে হবে। তবে শুস্ক মৌসুমে প্রাকৃতিক খাদ্যের পর্যাপ্ততা কমে যাবার কারনে ঐ সময় খাবার পরিমান (৭০-৮০ গ্রাম) বাড়িয়ে দিতে হয়। খাদ্য ব্যবস্থাপনায় এ ধরনের পরিবর্তন আনলে হাঁসের ডিম উৎপাদন বেড়ে যাবে।খাদ্যে আমিষের পরিমাণ ডিম দেয়া হাঁসের ক্ষেত্রে ১৭-১৮ শতাংশ ও বাচ্চা হাঁসের ক্ষেত্রে ২১ শতাংশ রাখা উচিত।

হাঁসের সুষম খাবারের তালিকাঃ

খাদ্য উপাদান (%)হাঁসের বাচ্চা (০-৬ সপ্তাহ)বাড়ন্ত হাঁস (৭-১৯ সপ্তাহ)ডিম পাড়া হাঁস (২০ সপ্তাহ- তদুর্দ্ধ)
গম ভাঙ্গা৩৬.০৩৭.০৩৭.০
ভূট্টা ভাঙ্গা১৮.০১৮.০১৬.০
চালের কুড়া১৮.০১৭.০১৭.০
সয়াবিন মিল২২.০২২.০২৩.০
প্রোটিন কনসেনট্রেট২.০২.০২.০
ঝিনুক চূর্ন২.০২.০৩.৫
ডিসিপি১.২৫১.২৫০.৭৫
ভিটামিন খনিজ মিশ্রিত০.২৫০.২৫০.২৫
লাইসিন০.১০০.১০০.১০
মিথিওনিন০.১০০.১০০.১০
লবন০.৩০০.৩০০.৩০
মোট১০০.০০১০০.০০১০০.০০

৮ সপ্তাহের খাঁকি ক্যাম্পবেল জাতের হাঁসের জন্য মাথাপিছু ৪/৫ কেজি সুষম খাদ্য লাগে এবং ২০ সপ্তাহ পর্যন্ত ১২.৫ কেজি। পুর্ণবয়ষ্ক হাঁস গড়ে দিনে ১৩০ থেকে ১৫০ গ্রাম সুষম খাদ্য খায়। খাঁকি ক্যাম্পবেল হাঁসকে সর্বদা সুষম খাদ্য ভিজিয়ে খাওয়াতে হবে। এই ব্যবস্থায় খাবারের অপচয় কম হয়।

Tagged

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *