হাঁস-মুরগির কলেরার সরকারি ভ্যাকসিন দেয়ার নিয়ম,ডোজ,দেয়ার পদ্ধতি,সংরক্ষণ ও দাম সহ বিস্তারিত

দেশি মুরগি পালন দেশি মুরগির ভ্যাকসিন শিডিউল প্রাণিসম্পদ ব্রয়লার মুরগি পালন ভ্যাকসিন নিয়ে যত কথা ভ্যাকসিন শিডিউল ভ্যাকসিনেশন মুরগি পালন মুরগির ভ্যাকসিন শিডিউল লেয়ার মুরগি পালন সোনালি মুরগি পালন

হাঁস-মুরগির কলেরা গৃহপালিত ও বন্যপাখির একটি মারাত্মক সেপ্টিসেমিক রোগ। পাস্ত্তরেলা মাল্টোসিডা টাইপ-এ (Pasteurella multocida type-A) নামক ব্যাকটেরিয়া দ্বারা এ রোগ সৃষ্টি হয়ে থাকে। এটি মূলতঃ আক্রান্ত পাখি থেকে সুস্থ পাখিতে অথবা আক্রান্ত বা বাহক পাখির মল ও অন্যান্য নিঃসরণ দ্বারা পানি ও খাদ্য দূষণের মাধ্যমে অন্য সুস্থ পাখিতে ছড়ায়। উচ্চ আক্রান্তের হার ও অধিক মৃত্যুর হার এবং সবুজ বা হলুদ ডায়রিয়া এ রোগের প্রধান বৈশিষ্ট্য। সব বয়সী পাখি এ রোগে আক্রান্ত হতে পারে, তবে বয়স্ক পাখি বেশি সংবেদনশীল।

মাষ্টার সীডঃলোকাল ষ্ট্রেইন।
অরিজিনঃপ্রাণিসম্পদ গবেষণা প্রতিষ্ঠান, মহাখালী, ঢাকা।

ব্যবহার বিধিঃ

  • অয়েল এ্যাডজুভেন্ট টিকা ২ মাস বা তদুর্ধ বয়সী হাঁস-মুরগিকে চামড়ার নীচে ১ এম এল মাত্রায় প্রয়োগ করতে হয়। প্রথম টিকা প্রয়োগের ১৫ দিন পর বোষ্টার ডোজ প্রয়োগ করতে হয়। এরপর ৬ মাস অন্তর অন্তর টিকা দিতে হয়। এ্যালাম অধঃপতিত টিকা একই মাত্রায় এই বয়সী হাঁস-মুরগিকে প্রয়োগ করতে হয়। তবে, এই টিকা মাংসীপেশীতে প্রয়োগ করতে হবে। এই টিকাও ৬ মাস পর পর প্রয়োগ করতে হয়।

  • অয়েল এ্যাডজুভেন্ট ও এ্যালাম অধঃপতিত উভয় ধরনের টিকা মাঠ পর্যায়ে ব্যবহৃত হয়। কিন্তু দু’ধরনের টিকার প্রয়োগ স্থান ভিন্ন। ওয়েল এ্যাডজুভেন্ট টিকার তেল থাকে বিধায় তা মাংসপেশীতে প্রয়োগ করলে মাংস নষ্ট হয়ে যায় ও হাঁস-মুরগি খোঁড়া হয়ে যেতে পারে। এছাড়া অল্প বয়স্ক হাঁস-মুরগিতে (২ মাস বয়সের নীচে) প্রয়োগ করলে অনেক ক্ষেত্রে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা যায়।
বিঃ দ্রঃ :এই টিকা কিছুতেই বরফায়িত করা বা শূন্য ডিগ্রি (০০) সেলসিয়াস বা তার নীচের তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করা সম্পূর্ণভবে নিষিদ্ধ।
সরবরাহ :পপ্রতি ভায়ালে ১০০ মাত্রা টিকা।
মূল্য :প্রতি ভায়াল ৩০ টাকা।

Tagged

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *