পুরুষ ও মহিলা হাঁস চেনার উপায়

পুরুষ ও মহিলা হাঁস চেনার উপায়

প্রিয় খামারি বন্ধুরা, আজ আমরা পুরুষ ও মহিলা হাঁস চেনার উপায় জানাব। পুরুষ এবং মহিলা হাঁসের মধ্যে কিছু পার্থক্য রয়েছে। তবে হাঁসের প্রজাতির উপর নির্ভর করে পুরুষ ও মহিলা হাঁসের মধ্যে পার্থক্য করার উপায় ও ভিন্ন ভিন্ন। কিন্তু এমন কিছু কমন বিষয় রয়েছে যেগুলোর উপর ভিত্তি করে আপনি হাঁসের পুরুষ ও মহিলা পার্থক্য করতে পারবেন। […]

Continue Reading
মাসকোভি বা চীনা হাঁস পালনের সকল তথ্য

মাসকোভি বা চীনা হাঁস পালনের সকল তথ্য

মাসকোভি বা চীনা হাঁস পালন বিশ্বজুড়ে খুব জনপ্রিয়। কারণ, গৃতপালিত হাঁসের একটি অত্যন্ত পুরাতন এবং জনপ্রিয় জাত। মাসকোভি হাঁস সাধারণত আকারে বড় এবং মেক্সিকো, মধ্য এবং দক্ষিণ আমেরিকায় এদের আদিবাস। তবে, বর্তমানে সারা বিশ্বেজুড়ে এই জাতের হাঁস পালন করা হয়।বাংলাদেশ এবং ভারত সহ নানা দেশে পালিত হয়ে আসছে এই চীনা হাঁস বা মাস্কোভি জাতের হাঁস। […]

Continue Reading
পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি ডিম দেয়া ৬ টি হাঁসের জাত

পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি ডিম দেয়া ৬ টি হাঁসের জাত

প্রিয় খামারি বন্ধুরা, আজ আমি আলোচনা করব পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি ডিম দেয় এমন ৬ টি হাঁসের জাত নিয়ে। তো চলুন জেনে নিই; এমন ৬ টি হাঁসের জাত সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য যাদের ডিম পাড়ার ক্ষমতা সবচেয়ে বেশি। ১। খাকি ক্যাম্পবেলঃ শরীরের বিশেষ খাকি কালারের জন্যই এদের নাম খাকি ক্যাম্পবেল। পৃথিবীর অন্যতম বেশি ডিম উৎপাদন ক্ষমতার অধিকারী […]

Continue Reading
এই গরমে খামারে নিজেই তৈরি করুন ইলেকট্রোলাইট

এই গরমে খামারে নিজেই তৈরি করুন ইলেকট্রোলাইট

তীব্র গরমে গরুকে অবশ্যই ইলেকট্রোলাইট দিন। শুধু গরু না হাঁস মুরগী, কোয়েল ,কবুতরকে ও ইলেকট্রোলাইট দিন। গরমে গরুর শরীর থেকে ইলেকট্রোড এর ইনব্যালেন্স হয়ে যায়। ষাড় গরু,গাভী বা বাচ্ছা গুলো হাঁপাতে থাকে। প্রয়োজনীয় ইলেকট্রোলাইট এর অভাবে গরুর মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। নিচের তৈরি ফরমুলেশন অনুসারে ইলেক্ট্রোলাইট খাওয়ালে গরুর হজমের কোন প্রকার সমস্যা থাকবে না। “র […]

Continue Reading

যেকোনো খামারের সেড পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত করার উপায়

যেকোনো খামারে “অল ইন অল আউট” সিস্টেম অনুসরণ করতে হবে। “অল ইন অল আউট” মানে হচ্ছে খামারের একসাথে বাচ্চা তোলা এবং সেই বাচ্চা একসাথেই বিক্রি করে দেয়া। অর্থাৎ বিভিন্ন বয়সী বাচ্চা খামারে না রাখাই ভাল। খামারে একটা ব্যাচ পালন করে বিক্রি করার পরে কমপক্ষে ১৪ দিন গ্যাপ দিয়ে তারপরে নতুন বাচ্চা তুলতে হবে। এতে শুধু […]

Continue Reading

খামারের সেড জীবাণুমুক্ত করতে ফিউমিগেশন করার উপায়

প্রিয় পাঠক, ফিউমিগেশন হচ্ছে খামার জীবাণুমুক্ত করার অধিকতর কার্যকরি পদ্ধতি। অনেক খামারি রয়েছেন, যারা খামার ঘর বা সেড জীবাণুমুক্ত করার ব্যাপারে বেশ উদাসীন। আবার অনেকেই আছেন। যারা শুধুমাত্র পানি দিয়ে সেডের মেঝে পরিষ্কার করেই ভাবেন যে খামারের সেড বুঝি জীবাণুমুক্ত হয়ে গেল। কিন্তু আপনাদের বুঝতে হবে যে, সেড পানি দিয়ে  পরিষ্কার করা আর জীবাণুমুক্ত করা […]

Continue Reading

হাঁস পালন বই pdf Download করুন ফ্রিতে

প্রিয় পাঠক, অনেক সময় আপনারা হাঁস পালন বই pdf আকারে খুঁজে থাকেন। কিন্তু ভালমানের তথ্য সংবলিত এবং হাস পালনের পরিপূর্ণ কোনো বই খুঁজে পান না। তাই আজকে আপনাদের জন্য নিয়ে এলাম pdf বই যার নাম হচ্ছে “হাস পালন, রোগ ও চিকিৎসা” । এই বইটিতে হাস পালনের সকল তথ্য রয়েছে। হাঁসের ঘর নির্মাণ থেকে শুরু করে […]

Continue Reading

প্রাণিসম্পদে এন্টিবায়োটিকের যথেচ্ছা ব্যবহার ও অসহায় পৃথিবী

এন্টিবায়োটিক ব্যবহারে সতর্ক হোন খামারের প্রাণীতে এন্টিবায়োটিকের যথেচ্ছা ব্যবহার ও অপব্যবহারের কারনে আজ অধিকাংশ এন্টিবায়োটিক আর কাজ করছে না।জীবাণুগুলা হয়ে যাচ্ছে এন্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স। এন্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স হচ্ছে জীবাণুর বিরুদ্ধে এন্টিবায়োটিকের কার্যকারিতা নষ্ট হয়ে যাওয়া। যা খুবই ক্ষতিকর। এই ক্ষেত্রে প্রাণীকে ঔষধ খাওয়ালেও ভালো ফল পাওয়া যায় না, কারন জীবাণুর বিপক্ষে এন্টিবায়োটিক আর কাজ করতে পারেনা। কারণে-অকারণে,বিনা […]

Continue Reading

হাঁসের ডাকপ্লেগ রোগের কারন লক্ষণ ও চিকিৎসা

হাঁসের ডাক প্লেগ রোগ (Duck Plaque):প্লেগ হাঁসের একটি মারাত্মক ভাইরাল রােগ। পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই এবাগের প্রাদুর্ভাব দেখা যায় এবং আমাদের দেশেও এ রােগ বিদ্যামান।রোগের কারনঃ ডাকপ্লেগ ভাইরাস দ্বারা হাস এ রােগে আক্রান্ত হয়ে থাকে। রােগ ছড়ানাের মাধ্যমঃ আক্রান্ত হাসের মল পানি, খাদ্যপাত্র, হাঁস, খামারের সরঞ্জামাদি, হাসের ঘর, বিছানা সব কিছুতেই এ রােগ জীবানু ছড়িয়ে […]

Continue Reading

মুরগির ১ দিনের বাচ্চার ব্রুডিং করার নিয়ম

মুরগীর ব্রুডিং ব্যবস্থাপনাঃ জার্মান শব্দ ব্রুড  (brood) থেকে ব্রুডিং (brooding) শব্দটি এসেছে। যার অর্থ তাপ দেওয়া। বাচ্চাঅবস্থায় মুরগী তার শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। কারণ এই সময়ে তাদের তাপনিয়ন্ত্রণকারী অঙ্গগুলো পরিপুর্ণতা লাভ করে না এবং পালকগুলো বিকশিত না হওয়ায় তাপ ধরে রাখতে পারে না। তাই মুরগীর বাচ্চার তাপনিয়ন্ত্রণকারী অঙ্গগুলো পরিপুর্ণতা লাভ করা পর্যন্ত তাপ […]

Continue Reading